ঢাকা, রোববার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮ , , ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

আওয়ামী লীগ উন্নয়নের রাজনীতি করে: প্রধানমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক,ঢাকা । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: নভেম্বর ২, ২০১৮ ৩:০৮ দুপুর

‘রিক্ত আমি, সিক্ত আমি দেওয়ার কিছু নাই; আছে শুধু ভালোবাসা দিয়ে গেলাম তাই’। শুক্রবার (২ অক্টোবর) ময়মনসিংহ সার্কিট হাউজ মাঠে জনসভায় কবিতার এই পঙক্তির মাধ্যমেই বক্তব্য শেষ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে কারো উপর অত্যাচার-নির্যাতন করে না উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগ উন্নয়নের রাজনীতি করে। অন্যদিকে বিএনপি মানুষ হত্যা ও পোড়ানোর রাজনীতি করে। প্রধানমন্ত্রী বিগত ১০ বছরে সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ড জনগণের সামনে তুলে ধরে আগামীতে উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে আবারো নৌকায় ভোট চান। দীর্ঘ ছয় বছর পর ময়মনসিংহে প্রধানমন্ত্রী। এই ছয় বছরে এই জনপদ পেয়েছে বিভাগের মর্যাদা, পেয়েছে সিটি কর্পোরেশনসহ প্রতিশ্রুত সকল সুবিধা। তাই প্রাপ্তির আনন্দ ছুঁয়েছিল বিভাগের পুরো সার্কিট হাউজ ময়দান জুড়ে।
প্রধানমন্ত্রী তার বক্তৃতায় বিগত সরকারের অন্যায় ও দুঃশাসনের নানা অভিযোগ তুলে ধরেন। বললেন, আওয়ামী লীগ মানুষের কল্যাণ করলেও, বিএনপির কাজ অত্যাচার আর মানুষ খুন। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে কারো ওপর অত্যাচার করে না। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে কারো ওপর নির্যাতন করে না। আওয়ামী লীগ উন্নয়ন করে। আওয়ামী লীগ করে মানুষের কল্যাণ।’

তিনি আরো বলেন, ‘খুন, হত্যা, দখল, চাঁদাবাজি, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, বাংলাভাই সৃষ্টি আর মানি লন্ডারিং- এই ছিল বিএনপির কাজ। সরকার ছিল কী, সেই সময় হাওয়া ভবন। এই হাওয়া ভবনের খাওয়া মিটাতে গিয়ে দেশের কোনো উন্নয়ন নাই।’ ময়মনসিংহকে আরো এগিয়ে নিতে সরকারের বৃহৎ পরিকল্পনা তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। এসময় উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে জনগণের সহযোগিতা চান সরকারপ্রধান। এজন্য তিনি নৌকা মার্কায় ভোট চান। এরআগে সমাবেশ ময়দান থেকে এ বিভাগের চার জেলার ১৯৫টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মনে করা হচ্ছে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগে এটি আওয়ামী লীগের শেষ জনসভা। এই জনসভায় প্রধানমন্ত্রী বললেন প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী তৃণমূলের উন্নয়ন করাই তার সরকারের লক্ষ্য।