ঢাকা, বুধবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৮ , , ৬ সফর ১৪৪০

‘আমার স্বপ্ন যাকাত দেব , আর নিবো না’

নিউজ ডেস্ক । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: আগস্ট ২৭, ২০১৮ ২:১৬ দুপুর

‘আমার স্বপ্ন আমি যাকাত দবে, আর নবে না’। হতদরদ্রি ভ্যান চালক শহীদুল ইসলাম গাজী এমন অভব্যিক্তি প্রকাশ করে দৃঢ়চত্তিে বলনে, যাকাত দয়োর মত সার্মথ না থাকলওে অন্তত সচ্ছলভাবে আমার পরবিার চলতে পারে এমনটি এখন শুধু প্রত্যাশা নয়, রয়ছেে আমাদরে আত্মবশ্বিাস। অথচ কছিুদনি র্পূবওে তার দনি আন্তে পান্তা ফুরায় অবস্থা ছলি। অসুস্থতা কংিবা কোন সমস্যা হলে তার র্কজ করইে সমাধান করতে হতো। কথা বলছলিাম ডুমুরয়িার থুকড়া দরদ্রি ভ্যান চালক শহীদুল ইসলাম গাজী সাথ।ে


একই গ্রামরে বাসন্দিা রজোউল ইসলাম বশ্বিাস ভ্যান চালয়িে সংসার চালায়। দনি আনে দনি খায়। স্ত্রী ও দুই ময়েে নয়িে চার জনরে সংসার। দুই ময়েরে মধ্য বড় ময়েে বাক প্রতবিন্ধী। ছোট জন চর্তুথ শ্রণেীতে পড়।ে তনিি বলনে, কাজে যতেে না পারলে খাবার জুটতো না পরবিাররে। দনিভর ভ্যান চালয়িে যে আয় হতো তা দয়িইে চলছলি সংসার। কোন রকম সঞ্চয়রে সুযোগ ছলি না। ভ্যানটওি অনকে পুরাতন হওয়ায় চালাতে সমস্যা দখো দয়ে। ধীরে ধীরে সমস্যা প্রকট আকার ধারণ কর।ে নতুন ভ্যান কনোর সার্মথ না থাকায় চন্তিাগ্রস্ত হয়ে পড়নে। এরই মাঝে হঠাৎ ঝড়ে বসত ঘরটওি উড়ে যায়। যা ছলি মরার উপরে খাড়ার ঘা। পরবিার পরজিন নয়িে রান্না ঘরইে বসবাস শুরু করনে তনি।ি টানা পোড়নরে সংসারে তখন চলছলি হাহাকার। উল্লখিতি দুই পরবিার যখন হতাশায় নমিজ্জতি তখনই আশর্বিাদ হয়ে সামনে আসে থুকড়া বায়তুস সালাম যাকাত কমটি।ি একটি করে নতুন ভ্যান দয়ো হয় এ কমটিরি পক্ষ থকে।ে কমটিরি উদ্দশ্যে যাকাত সংগ্রহ ও বন্টনরে মধ্যদয়িে দারদ্রিমুক্ত থুকড়া গড়া। নতুন দু’টি ভ্যান পয়েে দু’টি পরবিারই মোটামুটি সচ্ছল হবার স্বপ্ন দখেছ।ে সম্প্রতি এ প্রতবিদেক থুকড়া গ্রামে গয়িে কথা বলার সময় দু’ভ্যান চালক উল্লখিতি অভব্যিক্তি প্রকাশ করনে। আর কমটিরি সদস্য আঃ হালমি গাজী জানান, সকলরে যাকাত দয়োর মত সার্মথ না হলওে অন্ততঃ সচ্ছলভাবে যাতে আমাদরে গ্রামরে সব পরবিার চলতে পারে এমন প্রত্যাশা নয়িইে যাকাত কমটিি গঠন করা হয়ছেে ।
স্থানীয়রা জানান, থুকড়া বাজার সংলগ্ন বায়তুস সালাম জামে মসজদিে একদনি জুময়া’র খুতবা দতিে গয়িে খতীব হাফজে মাওলানা মোঃ সাইফুল্লাহ মানসুর যাকাত বন্টনরে ওপর বস্তিারতি ব্যাখ্যা তুলে ধরনে। তার এ বক্তব্য অনকেরে মানষকি পরর্বিতন আসতে শুরু কর।ে এরপর একদনি মসজদি কমটিরি সভাপতি আলহাজ্ব মোঃ আফজাল হোসনে উক্ত খতীবকে নয়িে খুলনায় আলোচনায় বসনে। দু’জন প্রাথমকি আলোচনার পর এলাকায় গয়িে আরও কয়কেজন মুসল্লরি সাথে কথা বলনে। এভাবে ধীরে ধীরে সকলইে বষিয়টি ইতবিাচক হসিবেে ননে। এক র্পযায়ে ২০১৭ সালরে রমজান মাসে থুকড়া কন্দ্রেীয় জামে মসজদিরে খতবি হাফজে সাইফুল্লাহ মানসুর যাদরে যাকাত দয়োর সার্মথ আছে এবং যাদরে যাকাতরে র্অথ প্রাপ্য সবারই তালকিা করার উদ্যোগ ননে। এদনি থকেইে যাকাতরে সমবন্টন নতিমিালা বাস্তবায়নে ‘যাকাত ভত্তিকি সমাজ চাই-দারদ্রি মুক্ত দশে চাই’ শ্লোগান নয়িে থুকড়া বায়তুস সালাম যাকাত কমটিরি র্কাযক্রম শুরু। যাকাতরে টাকা দয়িে প্রথম দফায় উল্লখিতি দু’ব্যক্তকিে ভ্যান প্রদান করা হয়। দ্বতিীয় দফায় চলতি বছররে ২৭ জুলাই আনুষ্ঠানকিভাবে আরো ছয় জনকে তনিটি গরু ও তনিটি ছাগল বতিরণ করা হয়ছে।ে স্থানীয় অসহায় হতদরদ্রি রাবয়ো খাতুন, রতœা খাতুন, মোঃ লটিন, বধিাবা আয়শা খাতুন, ইউনুস বশ্বিাস ও নাইট র্গাড বছরি উদ্দনি এখন যাকাতরে র্অথ দয়িে সাবলম্বী হওয়ার স্বপ্ন দখেছনে। গরু পয়েে তাৎক্ষণকি প্রতক্রিয়িায় নাইট র্গাড বছরি উদ্দনি বলনে, দ্বতিীয়বার কোন সাহায্য না নয়িে বরং র্পূবরে ২ জনরে মতোই আমরা স্বাবলম্বী হওয়ার স্বপ্ন দখেছ।ি
খােঁজ নয়িে জানা গছে,ে ডুমুরয়িার থুকড়া বায়তুস সালাম যাকাত কমটিকিে অনুসরণ করে কুষ্টয়িা কন্দ্রেীয় মসজদি ও কুষ্টয়িার কুমারখালতিে যাকাত ভত্তিকি সমাজ গঠনরে উদ্যোগ নয়িছে।ে এছাড়া সাতক্ষীরা গত বছর উদ্যোগ নয়িে সম্প্রতি প্রথমবাররে মতো যাকাতরে র্অথ বতিরণ করা হয়ছে।ে এছাড়া রূপসার রহমিনগরওে যাকাত র্কাযক্রমরে উদ্যোগ নয়ো হয়ছে।ে কুষ্টয়িার কুমারখালরি মোঃ নাজমুল আহসান বলনে, আমরা যাকাত কমটিরি প্রধান উপদষ্টো হাফজে সাইফুল্লাহ মানসুর ভাইয়রে সাথে যোগাযোগ করে যাকাত র্কাযক্রম চালুর প্রস্তুত নচ্ছি।ি আশা করি খুব দ্রুত র্কাযক্রম শুরু করতে পারবো। এই ব্যাপারে হাফজে সাইফুল্লাহ মানসুর আমাদরে যথষ্টে সহযোগতিা করছনে।
থুকড়া বায়তুস সালাম যাকাত কমটিরি প্রধান উপদষ্টো ডাঃ হাফজে মাওলানা মোঃ সাইফুল্লাহ মানসুর বলনে, “র্বতমানে দশেে বকোর ও দারদ্র্যিতা প্রধান সমস্যা। আর অভাবরে কারণইে দরদ্রি মানুষরো বভিন্নি অপরাধে জড়য়িে পড়ছ।ে এ থকেে জাতকিে রক্ষায় যাকাতভত্তিকি সমাজ প্রতষ্ঠিার কোন বকিল্প নইে। যদওি এর মূল দায়ত্বি হলো সরকার বা রাষ্ট্ররে। কন্তিু বকিল্প এবং সম্পূরক ক্ষত্রে হসিবেে এলাকার বশিষ্টি ব্যক্তদিরে নয়িে আমরা এ র্কাযক্রম শুরু করছে।ি আর সরকাররে পক্ষে স্থানীয় সরকার র্অথাৎ ইউনয়িন পরষিদরে চয়োরম্যান-মম্বেররা এতে সহযোগতিা দচ্ছিনে। এটি গোটা সমাজ ব্যবস্থার ওপর বরিাট প্রভাব পড়বে এবং বকোর ও দারদ্র্যিমুক্ত দশে গঠনে বড় একটা ভূমকিা রাখবে বলে আমি বশ্বিাস কর”ি।
প্রসঙ্গ তুলে ধরে তনিি বলনে, “গত বছর খুলনায় যে ভক্ষিুকমুক্ত করার পরকিল্পনা হাতে নয়ো হয়ছেে সে ক্ষত্রেওে যাকাতরে যথাযথ ব্যবহার হলে খুব সহজইে ভক্ষিুকমুক্ত করা সম্ভব। বশিষে করে একটি মহল্লা বা গ্রামভত্তিকি যাকাত দাতা ও যাকাত প্রাপ্যদরে তালকিা করে সগেুলো সঠকিভাবে বন্টন হলইে একদকিে যাকাতরে মূল উদ্দশ্যে বাস্তবায়ন হবে অপরদকিে দারদ্রি বমিোচনরে পাশাপাশি সকলইে স্বাবলম্বী হওয়ার সুযোগ পাব”ে। বত্তিবানরো যাকাত দয়িে সহযোগীতা করতে যোগাযোগ করতে পারনে এই নাম্বার-ে০১৯১৩-৩৩৩২৩১ (প্রধান উপদষ্টো)