ঢাকা, সোমবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৭ , , ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

এমসিসি বিশ্ব ক্রিকেট কমিটিতে সাকিব

নিউজ ডেস্ক: । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: অক্টোবর ৫, ২০১৭ ১২:১২ দুপুর

বিশ্ব ক্রিকেটে রাজত্ব করছেন অনেক দিন থেকেই। ক্রিকেটের তিন ফরম্যাটেই সবচেয়ে বেশি দিন সেরা অলরাউন্ডারের খেতাব ধরে রাখার রেকর্ডও তার। ক্রিকেটের মাধ্যমে বাংলাদেশকে অাগেই অন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব অাল হাসান।

তবে এবার যে সম্মান তিনি বয়ে এনেছেন তা ক্রিকেট বিশ্বে বাংলাদেশের মর্যাদা কয়েক গুণ বাড়িয়ে দিয়েছে। সম্প্রতি তিনি নিয়োগ পেয়েছেন এমসিসি বিশ্ব ক্রিকেট কমিটিতে। বিশ্বের সেরা এবং অভিজ্ঞ ১৫ জন ক্রিকেটারকে নিয়োগ দেয়া হয় এ কমিটিতে।

মাইক গ্যাটিং, রিকি পন্টিং, কুমার সাঙ্গাকারা, সৌরভ গাঙ্গুলি, ইয়ান বিশপ ও ব্রেন্ডন ম্যাককালামের মতো সাবেকরা রয়েছেন এ কমিটিতে। এমন সব অভিজ্ঞদের সঙ্গেই যোগ হয়েছে সাকিবের নাম।

অস্ট্রেলিয়ার লর্ডস ক্রিকেট গ্রাউন্ডের স্বত্বাধিকারী মেরিলেবোন ক্রিকেট ক্লাব (এমসিসি) বিশ্ব ক্রিকেটের আইন-কানুন প্রণয়নে নেতৃত্ব দিয়ে থাকে।

এমসিসির প্রস্তাবে ২০০৬ সালে প্রথম গঠিত হয় বিশ্ব ক্রিকেট কমিটি। সম্পূর্ণ স্বাধীন এ কমিটি ক্রিকেটে স্বার্থে নতুন নতুন নিয়ম কানুন এবং ক্রিকেটের ভালো মন্দ সম্পর্কে আলোচনার জন্য বছরে দুইবার মিটিংয়ে বসে। সেখান থেকে তারা ক্রিকেটের নতুন কোনো আইন দরকার হলে তা আলোচনা করে আইসিসির নিকট প্রস্তাব দেয়। সেটা যাচাই বাছাই করে আইসিসি সিদ্ধান্ত নেয়।

এর আগে ব্যাটের সাইজ ও আচরণবিধি পরিবর্তনের সুপারিশ করেছিল বিশ্ব ক্রিকেট কমিটি, যা বাস্তবায়ন করেছে আইসিসি।

 

১৫ জন ক্রিকেটার পাশাপাশি এতে কয়েকজন আম্পায়ারও রয়েছেন। আম্পায়ারদের মধ্যে ডেভিড শেফার্ড। সাবেক ক্রিকেটারদের মধ্যে ব্যারি রিচার্ডস, মার্টিন ক্রো, স্টিভ ওয়াহ, মাইক আথারটন, জিওফ্রে বয়কটের মতো স্বনামধন্য ক্রিকেটাররা এ কমিটিতে ছিলেন।

বর্তমান কমিটির চেয়ারম্যান ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক মাইক গ্যাটিং। আগের কমিটির বিদায়ী চেয়ারম্যান মাইক ব্রিয়ারলির জায়গা নিলেন তিনি।

চিঠি দিয়ে সাকিবকে ওয়ার্ল্ড ক্রিকেট কমিটির সদস্য হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার খবর জানায় এমসিসি। তার এ সদস্যপদ কার্যকর হয়েছে ১ অক্টোবর থেকে।

ভীষণ সম্মানজনক এ সদস্যপদ পেয়ে উচ্ছ্বসিত সাকিব সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বলেন, ‘এমসিসি ওয়ার্ল্ড ক্রিকেট কমিটির সদস্য হিসেবে বেছে নেওয়ায় সত্যিই সম্মানিত বোধ করছি। আমাকে এমন সম্মান দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ।’

বাংলাদেশের প্রথম কোনো ক্রিকেটার এমন সম্মান অর্জন করলো। সাকিবদের কমিটির প্রথম বৈঠক হবে আগামী ৯ ও ১০ জানুয়ারি, সিডনিতে। ২য় সভা হবে আগামী ৬ ও ৭ অগাস্ট, লর্ডসে।