ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮ , , ২ রবিউস সানি ১৪৪০

কলকাতায় সার্ক মানবাধিকার প্রতিনিধি সম্মেলন অনুষ্টিত

ভারত থেকে । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: সেপ্টেম্বর ১, ২০১৮ ৮:২৪ দুপুর

কলকাতায় সার্ক মানবাধিকার প্রতিনিধি সম্মেলনে বক্তারা বলেন

বাংলাদেশের বর্তমান সরকার ভারতের সাথে সম্পর্ক উন্নয়নে আন্তরিক

মানবতার কথা বলতে জাতি,ধর্ম, গোত্র বা সীমান্ত বাধা হতে পারেনা, যে দেশ বা জাতি তার মানুষের অধিকার নিশ্চিত করতে সচেষ্ট সে দেশ তত উন্নত। মানুষের সেবা করতে প্রয়োজন সততা, স্বচ্ছতা, নীতি, আদর্শ ও চরিত্র, যে মানবাধিকার কর্মীর মাঝে এসব গুনাবলী থাকবে তার কাছে জাতি কিছু আশা করতে পারে। দক্ষিণ এশিয়ায় একটি শক্তিশালী মানবাধিকার সংগঠন সময়ের দাবি ছিল আর যথা সময়ে বাংলাদেশ হতে মানবতাবাদী মাওলানা আবেদ আলী এই উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে এই সংগঠনের যাত্রা সূচনা করেছে।
দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তর সেবামূলক সংস্থা “সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন ” পশ্চিমবঙ্গের কার্যক্রম সূচনার লক্ষ্যে ১ লা সেপ্টেম্বর ২০১৮ কলকাতা প্রেস ক্লাবে এক প্রতিনিধি সম্মেলনে বক্তারা এসব কথা বলেন। সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পশ্চিমবঙ্গ সরকারের রাষ্ট্র মন্ত্রী মাওলানা সিদ্দিক উল্লাহ চৌধুরী, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন যথাক্রমে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের রাজ্যসভার এম এল এ অর্জুন সিং ,
সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও কেন্দ্রীয় মহাসচিব অধ্যাপক মাওলানা আবেদ আলী, কেন্দ্রীয় পরিচালক ড. মুহাম্মাদ মাসুম চৌধুরী, এম আই মারুফ পাটওয়ারি, আঞ্জুমান আসকারির প্রতিষ্ঠাতা নবাব আলী হাসান আসকারি,সার্ক মানবাধিকার ফাউন্ডেশন ভারতের সাধারণ সম্পাদক শ্রী গনেশলাল গুপ্তা। রাজ্য সম্পাদক
সুপর্ণা রায় এর উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন রবিন্দ্র পুরুস্কার প্রাপ্ত কবি পবিত্র মুখপাধ্যায়।
সংগঠনের মহাসচিব বলেন মানব সেবা একটি এবাদত এতে স্রষ্টার সন্তুষ্টি অর্জন হয়। সার্কভুক্ত দেশসমূহে মানবাধিকার উন্নয়নে আমরা সম্মিলিত প্রচেষ্টা চালিয়ে গেলে বিশ্বের

মাঝে মাতা উঁচু করে দাড়াতে পারব। কেন্দ্রীয় পরিচালক ড. মুহাম্মাদ মাসুম চৌধুরী বলেন বর্তমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির যুগে প্রতিবেশীকে বাদ দিয়ে মানবাধিকার প্রতিষ্ঠার চিন্তা করা যায় না। তাই গতানুগতিক চিন্তা না করে সার্ক মানবাধিকার সংস্থাটি দক্ষিণ এশিয়ার মানবাধিকার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছে।