ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮ , , ৫ রবিউস সানি ১৪৪০

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু সেপ্টেম্বরে

মুহাম্মদ আতিকুর রহমান (আতিক), গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: আগস্ট ৭, ২০১৮ ৩:২৪ দুপুর

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের (জিএমপি) ৮ থানার সীমানা নির্ধারন সম্পন্ন হয়েছে।

মেট্রোপলিটনের আনুষ্ঠিানিক কার্যক্রম আনুষ্ঠিানিকভাবে শুরু হচ্ছে আগামী সেপ্টেম্বরে। এজন্য চলছে ব্যাপক তোড়জোড়। ইতিমধ্যে নতুন ৬ থানার জন্য ভবন ভাড়া নেওয়া, স্বাজসজ্জা এবং সীমানা নির্ধারনের কাজ শেষ হয়েছে। এখন উপ-কমিশনারদের অফিস ও অন্যান্য কার্যক্রম গোছগাছ চলছে।

গাজীপুর মহানগরীর জয়দেবপুর সড়কের সার্ডি এলাকায় ভাড়া করা একটি ভবনে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের হেড কোয়ার্টারে প্রস্তুতিমূলক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন পুলিশ কমিশনার ওয়াই এম বেলালুর রহমান। একই ভবনে মেট্রোপলিটন পুলিশের বিভিন্ন অফিস গোছানো হচ্ছে। সিটি এসবি, ডিসি ট্রাফিকসহ বিভিন্ন অফিসের কার্যক্রম চালানোর জন্য ইতিমধ্যে বিল্ডিং ভাড়া দেখা হয়েছে। কার পার্কিংয়ের জন্য ব্যবস্থা করা চেষ্টা চলছে। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জিএমপির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের কথা রয়েছে।

জিএমপির কমিশনার বেলালুর রহমান জানান, আগামি সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে আনুষ্ঠানিকভাবে মেট্রোপলিটন পুলিশ (জিএমপি)-এর কার্যক্রমের উদ্বোধন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। জিএমপির লগো মন্ত্রণালয়ে অনুমোদনের জন্য অপেক্ষায় রয়েছে। ইতিমধ্যে এক হাজার ১৫২ জনবলের মধ্যে অর্ধেকই পাওয়া গেছে। থানা গুলোতে কর্মকর্তা-জনবল পদায়ন এবং তাদের অনুকুলে মোবাইল ফোন বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। অফিসের আসবাবপত্র গুছানো হচ্ছে। ইন্টারনেট কানেক্টিভিটিও শেষ হয়েছে। আনুষ্ঠানিকভাবে জিএমপির কার্যক্রম শুরুর আগে এবং অপারেশনাল কাজ শুরুর আগেই প্রয়োজনীয় জনবল, অস্ত্র গোলাবারুদ, গাড়ি পাওয়া যাবে।

জিএমপির নতুন থানা ও এর অধিভূক্ত এলাকা নির্ধারণ : জিএমপির পুলিশ কমিশনার বলেন, জিএমপির আওতাধীন ৮ থানার সকল সীমনা নির্ধারণ শেষ হয়েছে।

নগরীর ১৯, ২৩, ২৪, ২৫, ২৬, ২৭, ২৮, ২৯, ৩০ ও ৩১ এ ১০টি ওয়ার্ড নিয়ে থাকছে সদর থানা (বর্তমান জয়দেবপুর থানা)।

বাসন থানা (ভোগড়া বাইপাস) এলাকা গঠিত হচ্ছে ১৩, ১৪, ১৫, ১৬, ১৭, ১৮, ২০, ২১ ও ২২ এ ৮ ওয়ার্ড নিয়ে।

৭, ৮, ৯, ১০, ১১ ও ১২ এই ৬ ওয়ার্ড নিয়ে হচ্ছে কোনাবাড়ি থানার।

কাশিমপুর (সারদাগঞ্জ পুকুর পাড়) থানাও গঠিত হচ্ছে ৬ ওয়ার্ড নিয়ে। ওয়ার্ড গুলো হচ্ছে ১, ২, ৩, ৪, ৫ ও ৬।

গাছা থানায় (মালেকের বাড়ি) ওয়ার্ড থাকছে ৭টি। ওয়ার্ড গুলো হলো ৩২, ৩৩, ৩৪, ৩৫, ৩৬, ৩৭ ও ৩৮।

পূবাইল থানার (মীরের বাজার রেলক্রসিং সংলগ্ন) ওয়ার্ডের সংখ্যা মাত্র ৪টি। সেগুলো হচ্ছে ৩৯, ৪০, ৪১ ও ৪২।

টঙ্গী পূর্ব থানা (বর্তমান টঙ্গী থানা) ও পশ্চিম থানা গঠিত হচ্ছে বেশ কয়েকটি পুর্নাঙ্গ ও আংশিক ওয়ার্ডের সমন্বয়ে। ওয়ার্ড গুলো হচ্ছে ৪৩, ৪৪, ৪৫, ৪৬, ৪৭, ৪৮, ৪৯, ৫০ (আংশিক), ৫৫ (আংশিক), ৫৬, ও ৫৭ (আংশিক) এবং টঙ্গী পশ্চিম থানার (খাঁপাড়া রোড) ওয়ার্ড গুলো হচ্ছে ৫১, ৫২, ৫৩, ৫৪ ও ৫০ (আংশিক), ৫৫ (আংশিক) ও ৫৭ (আংশিক) নিয়ে।

উল্লেখ্য, গত ১৮ জুলাই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জারিকৃত এক আদেশে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ওয়াই এম বেলালুর রহমানকে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের পুলিশ কমিশনার হিসেবে নিয়োগ করা হয়।