ঢাকা, সোমবার, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ , , ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪০

ট্রলার ডুবিতে শ্রমিকের লাশ উদ্ধার, নিখোঁজ: দুই

নিউজ ডেস্ক । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১০, ২০১৯ ১০:৩৫ সকাল

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় রাবনাবাদ নদে বাল্কহেডের ধাক্কায় ট্রলার ডুবে নিখোঁজ দুই শ্রমিক নুর ইসলাম (৩০) ও সাইফুল ইসলামের (২৮) লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের বাড়ি উপজেলার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের বাইনবুনিয়া গ্রামে।

ডুবে যাওয়া ট্রলারটি উদ্ধার করা যায়নি।নিখোঁজের ৩৪ ঘণ্টা পর রোববার সকালে লাশ দুটি উদ্ধার করেন ডুবুরীরা।

ট্রলারের মালিক নিজাম শরীফ এই ঘটনায় ঘাতক বাল্কহেডের সাত কর্মচারির বিরুদ্ধে কলাপাড়া থানায় মামলা করা করেছেন।

পুলিশ মামলার প্রধান আসামি বাল্কহেড কর্মচারি নুরুজ্জামানসহ আফজাল হোসেন ও এনামুল হককে গ্রেফতার করেছে। জব্দ করা হয়েছে বাল্কহেড। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তা এসআই বিল্পব মিস্ত্রি।

এর আগে শুক্রবার রাতে বাল্কহেডের ধাক্কায় ইটবোঝাই ট্রলারটি ডুবে যায়। এ সময় ট্রলারে থাকা সাত শ্রমিদের মধ্যে পাচঁজন সাঁতরে পাড়ে উঠতে পারলেও মো. নুরুল ইসলাম (৩০) ও মো. সাইফুল ইসলাম (২৮) নিখোঁজ হন।

খবর পেয়ে কোস্টগার্ড, কলাপাড়া ও বরিশাল ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল ট্রলারসহ নিখোঁজ শ্রমিকদের উদ্ধারে অভিযান শুরু করে।

সাঁতরে তীরে ওঠা শ্রমিক মো. মানিক জানায়, শুক্রবার সন্ধ্যায় কলাপাড়ার নীলগঞ্জ ইউনিয়নের নবীপুর গ্রামের মো. রুহুল আমীনের ‘সততা’ ইটভাটা থেকে ইট নিয়ে ট্রলারটি গলাচিপা যাচ্ছিলো। পথে চাম্পাপুর ইউনিয়নের পাটুয়া লঞ্চঘাট এলাকায় ট্রলারটি নোঙর করে রাখা হয়। পরে রাত সাড়ে ১১টার দিকে একটি বাল্কহেড এসে নোঙর করা ইটবোঝাই ট্রলারটিকে ধাক্কা দেয়। এতে ট্রলারটি সাত শ্রমিকসহ ডুবে যায়। এ সময় দুইজন নিখোঁজ হন।