ঢাকা, সোমবার, ২৩ জুলাই ২০১৮ , , ১০ জ্বিলকদ ১৪৩৯

ঢাকায় ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্টাফ রিপোর্টার, ঢাকা । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: জুলাই ১৩, ২০১৮ ১:২৪ দুপুর

তিনদিনের সফরে ঢাকায় এসে পৌঁছেছেন ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের আমন্ত্রণে শুক্রবার (১৩ জুন) সন্ধ্যা ৬টার দিকে একটি বিশেষ প্লেনে দিল্লি থেকে ঢাকায় পৌঁছান রাজনাথ সিং ও তার সফর সঙ্গীরা।

এসময় ঢাকার বিমান বাহিনীর বঙ্গবন্ধু এয়ারবেজে তাকে স্বাগত জানান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। বঙ্গবন্ধু এয়ারবেজ থেকে তিনি রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে আসেন। তিনদিন ঢাকায় অবস্থানকালে তিনি এখানেই থাকবেন।
​ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকায় পৌঁছালে তাকে উষ্ণ সংবর্ধনা জানান আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। এ সময় তারা কুশল বিনিময় করেন। ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার হর্ষ বর্ধন শ্রিংলাও
এসময় উপস্থিত ছিলেন।

ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের দ্বিপক্ষীয় বৈঠক হবে। বৈঠকে দুই দেশের নিরাপত্তা, সন্ত্রাস ও জঙ্গি প্রতিরোধ সহযোগিতা, সীমান্ত ব্যবস্থাপনা নিয়েও আলোচনা হবে।

ঢাকার ভারতীয় হাইকমিশন জানিয়েছে, ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং ১৩-১৫ জুলাই বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁনে আমন্ত্রণে ঢাকায় অবস্থান করবেন। ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে নিয়মিত ভিত্তিতে হওয়া স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পর্যায়ের বৈঠকের প্রেক্ষাপটে এ সফর অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ২০১৬ সালের জুলাই মাসে নয়াদিল্লীতে সর্বশেষ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

রাজনাথ সিং সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। এছাড়াও তিনি যমুনা ফিউচার পার্কে একটি নতুন, আধুনিক ও সমন্বিত ভারতীয় ভিসা আবেদন কেন্দ্র উদ্বোধন করবেন।

শনিবার (১৪ জুলাই) রাজনাথ সিং রাজশাহী সফর করবেন। দুই দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী যৌথভাবে রাজশাহীর সারদায় বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমিতে বাংলাদেশ-ভারত মৈত্রী ভবন উদ্বোধন করবেন।

রোববার (১৫ জুলাই) বাংলাদেশ-ভারত স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের ৬ষ্ঠ বৈঠকে যৌথভাবে সভাপতিত্ব করবেন তারা। তারা নিরাপত্তা, সীমান্ত ব্যবস্থাপনা, অবৈধ ক্রিয়াকলাপ দমনে সহযোগিতা এবং ভ্রমণ ব্যবস্থা সম্পর্কিত বিষয়ে আলোচনা করবেন।

ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সফর ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যকার চমৎকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের একটি সুস্পষ্ট পর্যালোচনা করতে এবং দুই দেশের সম্পর্ক আরও জোরদার করতে সহযোগিতা করবে বলে আশা করা হচ্ছে।