ঢাকা, বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ , , ৩ রবিউস সানি ১৪৪০

বই মেলায় রাকিব হাসানের ‘টেলিভিশন সাংবাদিকতা: রিপোর্টিং পরিকল্পনা ও রিপোর্টার’

শিল্প ও সাহিত্য ডেস্ক । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১০, ২০১৮ ১:৩৪ দুপুর

ঢাকা :: নবীন টেলিভিশন সাংবাদিকদের জন্য এবারের অমর একুশে বইমেলায় পাওয়া যাচ্ছে ‘টেলিভিশন সাংবাদিকতা: রিপোর্টিং পরিকল্পনা ও রিপোর্টার’ নামক একটি বই।

বইটির লেখক চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সাবেক শিক্ষার্থী, সাংবাদিক রাকিব হাসান। আর প্রকাশক রবিন আহসান, শ্রাবণ প্রকাশনী। প্রচ্ছদ একেঁছেন সঞ্জয় বিকাশ দাস। বইটির ভূমিকা লিখেছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ।

বইটির প্রাপ্তিস্থান: বই মেলা, শ্রাবণ প্রকাশনীর ৩২৪,৩২৫ ও ৩২৬ নম্বর স্টলে। এছাড়া অনলাইনে পাবেন www.rokomari.com-এ।

যাদের জন্য এই বই : টেলিভিশন সাংবাদিকতা নিয়ে বাংলায় যে কয়টা বই আছে তাতে শুধুই তত্ত্বীয় আলোচনা; প্র্যাকটিক্যাল দিকগুলো নিয়ে খুব একটা আলোচনা হয়নি। যে কারণে থিওরিটিক্যাল ও প্র্যাকটিক্যাল সাংবাদিকতার মধ্যে যোজন-যোজন দূরত্ব তৈরি হয়েছে। যথাযথভাবে সংযোগটি না হওয়াতে পরবর্তীতে অনেক সময় নিয়ে ফিল্ডে কাজ করে বিষয়গুলো আয়ত্ত্ব করতে হচ্ছে নবীন রিপোর্টারদের। যে সময়টিতে ফিল্ডে গিয়ে এক্সক্লুসিভ সংবাদ বের করে আনার কথা ছিলো, সে সময়টাতে তাকে থিওরি এবং প্র্যাকটিক্যালের মধ্যে সংযোগ ঘটানোতে মনোনিবেশ করতে হচ্ছে। এতে প্রতিনিয়ত নতুনদের মধ্যে জন্ম নেয়া ক্ষোভ ও হতাশার সংমিশ্রণের যে বিরল অভিজ্ঞতা; তা নিয়েই প্রতিকূল পরিবেশের সাথে খাপ খাওয়ানোর সংগ্রামে ব্যস্ত থাকতে হচ্ছে। মূলত সেই দূরত্বকে কমিয়ে আনার লক্ষ্যে ‘টেলিভিশন সাংবাদিকতা: রিপোটিং পরিকল্পনা ও রিপোর্টার’ বইটিতে তত্ত্বীয় ও ব্যবহারিক সাংবাদিকতার মধ্যে সমন্বয় সাধনের চেষ্টা করা হয়েছে।

বাস্তবে কীভাবে টেলিভিশন রিপোর্ট করতে হয়, স্ক্রিপ্ট কীভাবে লিখতে হয়; লিংক, ভয়েজওভার, ভক্সপপ, সিংক, পিটিসির মাধ্যমে কীভাবে একটি পরিপূর্ণ প্রতিবেদন উপস্থাপন করতে হয়; তার খুঁটিনাটি বিষয়গুলো তুলে ধরা হয়েছে। একই সাথে প্রতিটি প্যাকেজ প্রতিবেদনে ব্যবহৃত আপসাউন্ড, এমব্রিয়্যান্ট, ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিকের যথাযথ ব্যবহারের মাধ্যমে কীভাবে একটি রিপোর্টের আবেদনকে আরো আকর্ষণীয় করে তোলা যায়; সেসব কৌশলও উঠে এসেছে।

এছাড়া লাইভ, এজলাইভ ও ফোনোলাইভ-এ রিপোর্টারের উপস্থাপন কৌশল ছাড়াও দেশের চলমান রাজনীতি, অর্থনীতি, দু:যোগপূর্ণ পরিস্থিতি, কোর্ট, ক্রাইম ও অনুসন্ধানী প্রতিবেদন তৈরির নানা দিক এবং ফিল্ডে এসব রিপোর্ট করতে গিয়ে কীভাবে নানা চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করতে হয়; তা তুলে ধরা হয়েছে একজন রিপোর্টারের বাস্তব অভিজ্ঞতার ও ঘটনা প্রবাহের ভেতর দিয়ে।

মূলত বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে সাংবাদিকতা শিক্ষার পর; বাস্তবে এ পেশায় ১৩ বছর ফিল্ডে কাজের যে অভিজ্ঞতার সংমিশ্রণ ঘটেছে; তা থেকে এ বইটি লেখার বিশেষ তাগিদ অনুভব করেছি। তাই আশা নয়, দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, ভবিষ্যতে এই চ্যালেঞ্জিং পেশায় পথ চলতে আগ্রহী ও সাংবাদিকতার শিক্ষার্থীদের জন্য এই বইটি সহায়ক হবে।