ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮ , , ৫ রবিউস সানি ১৪৪০

‘বঙ্গবন্ধুর আত্মত্যাগের লক্ষ্য ছিল ক্ষুধামুক্ত বাংলাদেশ গড়ার’-গাজীপুরে চুমকি

মুহাম্মদ আতিকুর রহমান (আতিক), গাজীপুর জেলা প্রতিনিধি । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: আগস্ট ১১, ২০১৮ ৪:৩৩ দুপুর

মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি এমপি বলেছেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সুযোগ্য কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল। দ্রুতই বাংলাদেশ নিম্ন মধ্যম আয়ের দেশ হতে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হবে। ২০৪১ সালে বাংলাদেশ স্থান করে নেবে উন্নত দেশের কাতারে। প্রতিষ্ঠিত হবে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত শোষণহীন সোনার বাংলা। যা ছিল বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামী জীবনের আত্মত্যাগের মূল লক্ষ্য।

১১ আগস্ট শনিবার দুপুরে বোয়ালী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে গাজীপুরের কালীগঞ্জে তুমলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের আয়োজনে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, এক আঙ্গুগুলি হেলনে জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে বাংলার আপামর জনতা রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে স্বাধীনতা ছিনিয়ে এনেছিল। আর সেই স্বাধীন দেশেই বঙ্গবন্ধুর মতো মহান নেতার বুকে ঘাতকের বুলেট গোটা দেশ ও জাতিকে স্তব্ধ করে দিয়েছিল।

তিনি আরও বলেন, আগস্ট শোকের মাস। এই মাসেই ইতিহাসের জঘন্যতম হত্যাকান্ড সংগঠিত হয়েছিল। জাতির পিতা ও তার পরিবারের অন্য সদস্যরা নির্মম হত্যাকান্ডের শিকার হন। হত্যাকান্ড থেকে রেহাই পায়নি নারী ও শিশু। এ কারণে এই দিনটি বাঙালি জাতির জীবনে এটি একটি কলঙ্কজনক অধ্যায়।

তুমলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি কাজী সালাউদ্দিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক বজলুর রহমানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন পলাশ, আওয়ামী লীগ নেতা আবুবকর চৌধূরী, ছাত্রলীগ নেতা সাদ্দাম হোসেন প্রমুখ। এ সময় উপজেলা, পৌর, ইউনিয়ন, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।