ঢাকা, রোববার, ২০ জানুয়ারী ২০১৯ , , ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০

ভালুকার সংরক্ষিত বনভূমি লুটপাটে বন কর্মকর্তার নিরবতা

ভালুকা (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি: । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: জানুয়ারি ৬, ২০১৯ ১:০৬ দুপুর



ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা উপজেলায় সংরক্ষিত বনভূমি লুটপাট হচ্ছে প্রতিনিয়ত, অবৈধ দখলদাররা বাড়ী-ঘর নির্মাণ অব্যাহত রেখেছে, ফলে পরিবেশ হচ্ছে বিপন্ন। সরজমিনে ভালুকা রেঞ্জের হবিরবাড়ী মৌজার সীডষ্টোর বাজারের উত্তর পূর্ব দিকে ১৮৫ নং দাগে গিয়ে দেখা যায়, বনের গেজেট ভূক্ত ভূমি অবৈধ ভাবে দখল করে নির্মান করা হচ্ছে বহুতলা বিশিষ্ট পাকা বাড়ী। এতে রহস্য জনক ভাবে নিরবতা পালন করছেন স্থানীয় বন কর্মকর্তা ও কর্মচারীবৃন্দ। ঐ দাগে অবৈধ ভাবে বন ভূমিতে বাড়ী নির্মানকারী মতিউর রহমান (কাজী), জসীম উদ্দিন, লাল মিয়া ও বিশা খাঁ জানান, তারা বন বিভাগের স্থানীয় কর্মকর্তা কর্মচারীদের কে চাহিদানুযায়ী টাকা দিয়ে এই পাঁকা বাড়ী নির্মান করছেন। এমনকি যে এলাকায় বাড়ী ঘর নির্মান করা হচ্ছে এখন আর বন কর্মচারীদের ঐ এলাকার যাতায়েত করতেও দেখা যায়নি। গেজেট ভূক্ত বন ভূমি অবৈধ দখলদারদের হাতে চলে যাওয়ায় পরিবেশ মারতœক ভাবে বিপন্ন হচ্ছে। দ্রুত অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করা না হলে প্রাকৃতিক পরিবেশ হুমকির মুখে পড়বে। এ ব্যাপারে ভালুকা রেঞ্জ কর্মকর্তা মোজাম্মেল হোসেন এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, সংরক্ষিত বন ভূমি অবৈধ দখলদারদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। প্রয়োজনে এদের বিরোদ্ধে বন আইনে মামলা দেওয়া হবে। এ সব বাড়ী নির্মাণে বন কর্মচারীরা কোন ভাবে জড়িত রয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন তাও খতিয়ে দেখা হবে। এলাকাবাসী জানান, বন বিভাগের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মোটা অংকের টাকা দিয়ে বদলী হয়ে ভালুকা রেঞ্জে এসে গেজেট ভূক্ত বন ভূমি অবৈধ দখলদারদের কাছে নাম মাত্র মূল্যে অলিখিত ভাবে মালিকানা তুলে দিচ্ছেন। এলাকাসীর মতে যেসব বন কর্মচারী এই অপকর্মের সাথে জড়িত এদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হলে সংরক্ষিত বনভূমি সরকারের নিয়ন্ত্রনে চলে আসবে।