ঢাকা, রোববার, ২০ জানুয়ারী ২০১৯ , , ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০

র‌্যাব অভিযান চালিয়ে ২৭,১৫০ পিস ইয়াবাসহ ০৪ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: জানুয়ারি ১১, ২০১৯ ১:১৯ দুপুর

ফেনী জেলার সদর থানাধীন মহীপাল ও রামপুরা এলাকায় পৃথক ০২ টি অভিযান চালিয়ে ২৭,১৫০ পিস ইয়াবাসহ ০৪ জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৭ এবং ০১ টি পিকআপ ও ০১ টি কাভার্ড ভ্যান জব্দ।

১। বর্তমানে আমাদের দেশের যুব সমাজের অধঃপতনের অন্যতম কারণ হচ্ছে মাদকাসক্তি। মাদকাসক্তির ভয়াল থাবা প্রতিনিয়ত আমাদের সমাজকে ধ্বংস করে ফেলছে। দেশব্যাপী মাদকদ্রব্যের বিস্তাররোধ এবং দেশের যুব সমাজকে মাদকের ভয়াল থাবা থেকে রক্ষার জন্য প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে র‌্যাবের মাদক বিরোধী অভিযান দেশের সর্বস্তরের জনসাধারণ কর্তৃক বিশেষভাবে প্রশংসিত হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম এ বৎসর ০১ জানুয়ারি ২০১৮ হতে অদ্য ১০ জানুয়ারি ২০১৯ ইং তারিখ পর্যন্ত সর্বমোট ৩৪৫ টি বিভিন্ন ধরনের অস্ত্রসহ মোট ৪০ টি ম্যাগাজিন এবং ১০,২৫৭ রাউন্ড বিভিন্ন ধরনের গুলি/কার্তুজ উদ্ধারের পাশাপাশি ৫২ লক্ষ ১৭ হাজার ৩৯৮ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট, ২৪ হাজার ৫৩৫ বোতল ফেন্সিডিল, ৭,৫৬১ বোতল বিদেশী মদ ও বিয়ার, ০৯ লক্ষ ৮৭ হাজার ৫২৭ লিটার দেশীয় তৈরী মদ, ৬৪২ কেজি ৪১৯ গ্রাম গাঁজা, ০৭ কেজি ২৫০ গ্রাম আফিম এবং ০২ কেজি হেরোইন উদ্ধার করেছে।

২। এরই ধারাবাহিকতায়, র‌্যাব-৭, চট্টগ্রাম গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী একটি পিকআপ যোগে বিপুল পরিমান ইয়াবা ট্যাবলেট নিয়ে চট্টগ্রাম হতে ঢাকার দিকে যাচ্ছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে অদ্য ১০ জানুয়ারি ২০১৯ ইং তারিখ ০০০৫ ঘটিকার সময় র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল ফেনী জেলার ফেনী মডেল থানাধীন মহীপাল এলাকায় ফেনী পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের সামনে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের উপর একটি বিশেষ চেকপোস্ট স্থাপন করে গাড়ি তল্লাশি করতে থাকে। এ সময় চট্টগ্রাম হতে ঢাকগামী ০১টি পিকআপ এর গতিবিধি সন্দেহজনক হলে র‌্যাব সদস্যরা পিকআপটিকে থামানোর সংকেত দিলে পিকআপটি না থামিয়ে দ্রুত গতিতে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে উক্ত পিকআপটি আটক করতঃ আসামী ১। মোঃ হাছান (২৬), পিতা- মৃত মোঃ আলী আকবর এবং ২। মোঃ রাসেল (২২), পিতা- আঃ শুক্কুর, উভয় গ্রাম- মেরুল্লা, থানা- রামু, জেলা- কক্সবাজার’দেরকে আটক করে। পরবর্তীতে উপস্থিতি সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামিদেরকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করে তাদের দেখানো ও সনাক্ত মতে পিকআপটি (ঢাকা মেট্রো-ন-১৫-২৪৭৫) তল্লাশী করে পিকআপের মধ্যে রাখা ০৩টি প্লাষ্টিকের ফলের বক্স যাহার প্রতি বক্সের চার পার্শ্বে বিশেষ কৌশলে রাখা অবস্থায় সর্বমোট ১৯,০০০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়। পরবর্তীতে অন্য একটি গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী একটি কাভার্ড ভ্যান যোগে বিপুল পরিমান ইয়াবা ট্যাবলেট নিয়ে চট্টগ্রাম হতে ঢাকার দিকে যাচ্ছে। উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে অদ্য ১০ জানুয়ারি ২০১৯ ইং তারিখ ০০৩০ ঘটিকার সময় র‌্যাবের একটি আভিযানিক দল ফেনী জেলার ফেনী মডেল থানাধীন মহীপাল এলাকায় ফিলিং স্টেশনের এর সামনে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে উপর একটি বিশেষ চেকপোস্ট স্থাপন করে গাড়ি তল্লাশি করতে থাকে। এ সময় চট্টগ্রাম হতে ঢাকগামী ০১ টি কাভার্ড ভ্যানের গতিবিধি সন্দেহজনক হলে র‌্যাব সদস্যরা কাভার্ড ভ্যানটিকে থামানোর সংকেত দিলে কার্ভাড ভ্যানটি না থামিয়ে দ্রুত গতিতে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করিলে র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে আসামী ১। মোঃ রায়হান উদ্দিন (২৫), পিতা- মোঃ আব্দুল হান্নান এবং ২। মোঃ আশরাফুল ইসলাম রুবেল (২০), পিতা- মোঃ নূরুল ইসলাম, উভয় গ্রাম- সানকি ভাংগা, থানা- চন্দ্রগঞ্জ, জেলা- লক্ষীপুর’দেরকে আটক করে। পরবর্তীতে উপস্থিতি সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃত আসামিদেরকে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করে তার দেখানো ও সনাক্ত মতে কাভার্ড ভ্যানটি (ঢাকা মেট্রো-ট ১৫-৩৩০০) তল্লাশী করে কাভার্ড ভ্যানের ড্রাইভিং সীটের পিছনে লাল শপিং ব্যাগের ভিতরে সুকৌশলে লুকানো অবস্থায় ৮,১৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধারসহ আসামীকে গ্রেফতার করা হয়। পৃথক দুইটি অভিযানে সর্বমোট ২৭,১৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট সহ উক্ত পিকআপ ও কাভার্ড ভ্যান জব্দ করা হয়। উদ্ধারকৃত ইয়াবা ট্যাবলেট এর আনুমানিক মূল্য ০১ কোটি ৩৫ লক্ষ ৭৫ হাজার টাকা এবং জব্দকৃত পিকআপ এবং কাভার্ড ভ্যানের আনুমানিক মূল্য ৫৫ লক্ষ টাকা।

৩। গ্রেফতারকৃত আসামী এবং উদ্ধারকৃত মালামাল সংক্রান্তে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে ফেনী জেলার ফেনী মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।