ঢাকা, রোববার, ২০ জানুয়ারী ২০১৯ , , ১৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০

সুনামগঞ্জে সংরক্ষিত নারী আসন চার নেত্রীকে নিয়ে শুরু হয়েছে ব্যাপক আলোচনায়

জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি । সি এন এন বাংলাদেশ

আপডেট: জানুয়ারি ৭, ২০১৯ ১:০১ দুপুর



সুনামগঞ্জে সংরক্ষিত নারী আসন নিয়ে শুরু হয়েছে জল্পনা কল্পনা আর আলোচনায় আছেন জেলার আলোচিত চার নারী নেত্রী। তারা ভদ্র ও সজ্জন জনপ্রিয়তায় নেত্রী হিসেবে ইতিমধ্যে নেতাকর্মীদের মনে জায়গা করে নিয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুকে তাদেরকে সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি হিসেবে মনোনয়ন দেয়ার জন্য তাদের নিজ নিজ সমর্থিত নেতাকর্মীরা দাবি তোলেছেন।

গত ৩০ডিসেম্বর জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আ,লীগের বিজয়ের পর নতুন সংসদ বসার পরই সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি হিসেবে বর্তমানে সুনামগঞ্জ ও মৌলভীবাজার জেলার প্রতিনিধিত্ব করছেন সামছুন নাহার বেগম(শাহান রব্বানী)তার মেয়াদ শেষ হয়ে যাবে। তাই সুনামগঞ্জে সংরক্ষিত নারী আসন নিয়ে শুরু হয়েছে ব্যাপক আলোচনা কে হচ্ছেন এমপি,পুরাতন মুখ থাকছেন,না নতুন মুখ আসছেন,ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের এনিয়ে আগ্রহের শেষ নেই। আর সবার মুখে মুখে এখন জেলার আলোচিত চার নেত্রীর নামেই সবার মুখে মুখে। জেলার ১১টি উপজেলায় শুরু হয়েছে আলোচিত চার নেত্রীকে নিয়ে তুমুল আলোচনা-সমালোচনার ঝড় উঠেছে হাট-বাজার,চায়ের দোকান,পাড়া-মহল্লায়। কারন এই চার নেত্রীর রয়েছে নিজ নিজ এলাকায় নিজস্ব নেতাকর্মীদের বিশাল অবস্থান।

এমপি পদে আসতে জোর লবিং শুরু করেছেন সম্ভাব্য চার নারী প্রার্থী তাদের মধ্যে-জনপ্রিয়তার র্শীষে থাকা এমপি হিসেবে বর্তমানে সুনামগঞ্জ ও মৌলভীবাজার জেলার প্রতিনিধিত্ব করছেন জেলা মহিলা আ,লীগের সভাপতি ও জেলা আ,লীগের সদস্য সামছুন নাহার বেগম(শাহান রব্বানী)। এবারও তিনি সংরক্ষিত নারী আসনের এমপি হওয়ার দৌড়ে আছেন। সর্বশেষ সংসদ নির্বাচনে সুনামগঞ্জ-৪আসনে দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলেন এই নারী নেত্রী। মনোনয়ন না পেয়ে সদ্য সমাপ্ত নির্বাচনে জেলার দলীয় প্রার্থীদের প্রচারণা ও গণসংযোগ চালিয়ে আলোচনায় এসেছেন তিনি। তার অনুসারীদের মতে,গত পাঁচ বছরে শাহানা রব্বানীর বিরুদ্ধে দূর্নীতি,স্বজনপ্রীতির তেমন কোন অভিযোগ ছিল না। এলাকায় সর্বস্থরের জনসাধরনের মাঝে তার অবস্থান সবার চেয়ে একবারেই আলাদা। তাই সবার চাওয়া জননেত্রী শেখ হাসিনা আবারও তাকেই মনোনীনত করবেন।

সদ্য সমাপ্ত নির্বাচনে জেলার দলীয় প্রার্থীদের প্রচারণা ও গণসংযোগ চালিয়ে আলোচনায় এসেছেন নারী প্রার্থী জেলা মহিলা আ,লীগের সাধারন সম্পাদক হুসনা হুদা। মহিলা কর্মীদের নিয়ে মহাজোটের প্রার্থীদের পক্ষে গ্রাম,হাট-বাজার,পাড়া মহল্লা চষে বেড়িয়েছেন। তার সমর্থিত নেতাকর্মীদের চাওয়া জননেত্রী শেখ হাসিনা তাকেই মনোনীনত করবেন। হুসনা জেলা জেলা আ,লীগের সিনিয়র সহসভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক নুরুল হুদা মুকুটের স্ত্রী।

সুনামগঞ্জ-১(তাহিরপুর-জামালগঞ্জ-ধর্মপাশা)আসনে সদ্য সমাপ্ত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বচানে মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন কেন্দ্রীয় কৃষকলীগ নেত্রী অ্যাডঃ শামীমা শাহরিয়ার। কিন্তু দলীয় ভাবে তাকে মনোনয়ন দেয়া হয় নি। স্থানীয় ও জাতীয় রাজনীতিতে সক্রিয় এই নারী নেত্রী মনোনয়ন না পেলেও দলীয় প্রার্থীর পক্ষে প্রচারণা চালিয়েছেন বিরামহীন ভাবে। তার সমর্থিত নেতাকর্মীদের চাওয়া জননেত্রী শেখ হাসিনা তাকেই মনোনীনত করবেন। দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনা নতুন মুখ মনোনয়ন দিলে ভাগ্য খুলতে পারে শামীমা শাহরিয়ারের।

সংরক্ষিত নারী আসনের এমপির দৌড়ে আলোচনায় আছেন স্বাধীনতা পরবর্তী দেশের প্রথম পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রয়াত জাতীয় নেতা আব্দুস সামাদ আজাদের পুত্রবধূ মুমতাহিনা ঋতু। ঋতুর স্বামী জেলা আ,লীগের সদস্য আজিজুস সামাদ ডন সুনামগঞ্জ-৩আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী ছিলেন। কিন্তু তাকে দল মনোনয়ন দেয় নি। ঋতু নিজেও দীর্ঘ দিন ধরে কেন্দ্রীয় আ,লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। ডন অনুসারীদের মতে,ডন কে মনোনয়ন বঞ্চিত হওয়ায় নেত্রীর সুনজরে আছেন ঋতু। নেতাকর্মীদের চাওয়া জননেত্রী শেখ হাসিনা তাকেই মনোনীনত করবেন।